চাকমা নারীদের ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতিক পোষাক হচ্ছে খাদী পিনন, লেফইয়ার্ড। চাকমা নারীরা এই পোষাক নিজেদের হাতে বুনে পড়েন৷ এইসব পোষাক চাকমা নারীদের পোষাক হলেও চাকমাসহ অন্যান্য উপজাতি নারীদের কাছেও বেশ জনপ্রিয়। এইছাড়াও, বর্তমানে বাংলাদেশের মুল ধারার জনগোষ্ঠী বাঙ্গালী নারীদের মাঝেও বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে এই পোষাক। এটি অতীতে চাকমা নারীরা সাদামাটাভাবে হাতে বুনলেও বর্তমানে এটির নকশায় আছে সৃজনশীলতার চাপ। চাকমা নারীরা নিজেদের সৃজনশীল প্রতিভা দিয়ে তাদের ঐতিহ্যবাহী এই সাংস্কৃতিক পোষাকটির বিপুল বৈপ্লবিক পরিবর্তন ঘটিয়েছে। একসময় চাকমা নারীরা এই পোষাকসমূহ কেবল নিজেদের পরনের জন্যে বুনলেও এখন এর বিস্তার ঘটেছে বহুগুণে। এখন খাদি পিনন, লেফিয়ার্ড চাকমা নারীরা নিজেদের জন্যে উৎপাদনের পাশাপাশি বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যেও উৎপাদন করছে। চাকমা নারীদের ঐতিহ্যবাহী পোষাকটিরও বিস্তার ঘটেছে বেশ। এখন তাদের এই পোষাকটি চাকমা নারী ছাড়াও অন্যান্য উপজাতি জনগোষ্ঠীর মাঝে বেশ জনপ্রিয়। এইছাড়াও বাঙ্গালী নারীদের মাঝেও বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে চাকমা নারীদের ঐতিহ্যবাহী এই পোষাক।

বাংলাদেশের পার্বত্য চট্টগ্রামের অঞ্চলগুলোতে বসবাসরত চাকমা নারীদের মাঝে এর ব্যবহার খুব বেশী লক্ষ্য করা গেলেও পার্বত্য চট্টগ্রাম ছাড়াও অন্যান্য অঞ্চলগুলোতে এর যথেষ্ট জনপ্রিয়তা আছে। তবে, চাকমা নারীদের অন্যতম সাংস্কৃতিক ও ঐতিহ্যবাহী পোষাক এটি। যদিও, পার্বত্য চট্টগ্রামের বাইরের অঞ্চলে বসবাসরত চাকমা নারীদের এই ধরনের পোষাকে দেখা মেলে না বললেই চলে। তবে, তারা নিজেদের অন্তরে নিজেদের সাংস্কৃতিক ও ঐতিহ্যবাহী পোষাকটিকে ধারণ করেন বলেই প্রতীয়মান হয়। এইছাড়াও নিজেদের সাংস্কৃতিক পোষাক তো চাকমা নারীদের প্রিয় পোষাকই হবে।

চাকমা নারীদের ঐতিহ্যবাহী এই পোষাকটির জনপ্রিয়তা চাকমা নারী ছাড়াও অন্যান্য জনগোষ্ঠীর মাঝে বেশ প্রিয় হলেও পার্বত্য চট্টগ্রামের বাইরে এই পোষাকটির উৎপাদনকারী নেই বললেই চলে। রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি, বান্দরবান, কক্সবাজার ও চট্টগ্রামের বেশ কিছু এলাকায় এই পোষাকের উৎপাদন হয়। উৎপাদনকারীদের প্রায় সকলেই উপজাতী জনগোষ্ঠী। খাদি পিনন লেফইয়ার্ড উৎপাদনকারী উপজাতীয় জনগোষ্ঠীর বৃহৎ অংশ হচ্ছে চাকমা জনগোষ্ঠী।

যদিও কারো কারো ধারণা খাদি পিনন লেফইয়ার্ড চাকমা জনগোষ্ঠী ছাড়াও অন্যান্য জনগোষ্ঠীর লোকেরাও উৎপাদন করে। তবে, এই ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট কোন তথ্য পাওয়া যায়নি৷ অবশ্যই এটি খুব বেশী জোরালো দাবিও নয়। এইছাড়াও, খাদি পিনন লেফইয়ার্ডের ভোক্তারা এই পণ্যটির উৎপাদনকারীদের নিয়ে খুব বেশী উৎসাহি বলেও মনে হয়নি৷

খাদি পিনন লেফইয়ার্ডের জনপ্রিয়তার কথা চিন্তা করে এবং দেশ ও বিদেশের বিভিন্ন অঞ্চলে সরবাহ করার উদ্দেশ্যে শপিং মাষ্টার ইতিমধ্যে খাদি পিনন লেফইয়ার্ড বিপণনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। শপিং মাষ্টারের নিজস্ব ওয়েবসাইট https://shoppingmasterz.com থেকে অর্ডার করা যাবে পণ্যটি। কেউ চাইলে ফেসবুক পেজ https://facebook.com/shoppingmasterz থেকে পণ্যটি অর্ডার করতে পারবে। এই পণ্যটি ছাড়াও অন্যান্য পণ্যও অর্ডার করা যাবে শপিং মাষ্টারের নিজস্ব ওয়েবসাইট https://shoppingmasterz.com কিংবা ফেসবুক পেজ https://www.facebook.com/shoppingmasterz থেকে।

খাদি পিনন, লেফইয়ার্ড নামক শপিং মাষ্টারের প্যাকেজটিতে রয়েছে একটি হাতে বুনা খাদি পিনন। যা দেখতে অনেকটা স্কার্টের মত। এটির দৈর্ঘ্য প্রায় তি হাত বা ২ গজ। রয়েছে হাতে বুনা একটি ওড়না। যেটির দৈর্ঘ প্রায় ৬ ফিট। এইছাড়াও রয়েছে একটি ফতুয়াসদৃশ বা বক্ষবন্ধনীসদৃশ লেফইয়ার্ড। শপিং মাষ্টারের এই প্যাকেজটির মূল্য ধরা হয়েছে বর্তমানে বাংলাদেশী টাকায় ১৩৫০ টাকা। এই প্যাকেজটি বাংলাদেশ ছাড়াও অন্যান্য দেশের জন্যেও প্রযোজ্য। তবে, মূল্যে তারতম্য হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

X